ডোমেইন কিনবেন? একটু বুঝে শুনে কিনুন, যদি প্রতারিত হতে না চান! মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। কাজে লাগবে অবশ্যই

Domain names and internet concept

আমি সুমির। ছোট খাটো একটা ওয়েব হোস্টিং বিজনেস আছে। হোস্টিং বিজনেস এর খাতিরে অনেক সময় সেলসে ফোন রিসিভ করতে হয়। কাস্টমারদের নানা প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। মাঝে মাঝে কিছু প্রশ্ন শুনে অবাক হতে হয়।  যেগুলা শুনে হাসব না কাঁদব বুঝতে পারি না।

মাঝে মাঝে এই প্রশ্নটাই বেশী আসে কাস্টমার এর কাছ থেকে। আচ্ছা ভাই আপনারা যে ডোমেইনটা দিচ্ছেন সেটা কি প্রোমো না প্রিমিয়াম? যারা ডোমেইন হোস্টিং এর ব্যাপারে অবগত আছেন, নিশ্চয় এই প্রশ্ন দেখে মিটিমিটি হাসছেন? কারন এতদিন জানা ছিল ওয়েব হোস্টিং প্রিমিয়াম এবং বাজেট কোয়ালিটির হয়, কিন্তু ডোমেইন প্রোমো/প্রিমিয়াম কোয়ালিটির হয় তা আমার জানা ছিল না। বর্তমানে বাংলাদেশী কিছু ডোমেইন হোস্টিং কোম্পানীর মহান আবিষ্কারের জন্য এই উল্লেখিত প্রোমো/প্রিমিয়াম কোয়ালিটির দেখা পাওয়া যাচ্ছে।

 অবশ্য আমার এই লেখাটার কিছুটা ভুল আছে। কেননা প্রিমিয়াম ডোমেইন বলে অবশ্যই কিছু একটা আছে, কিন্তু সেটার কাহিনী টা অন্যরকম। সেটা হচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল মার্কেট প্লেস এ অনেক ডোমেইন আছে, যেগুলা অনেক আগেই কেনা হয়ে গেছে এবং সেই ডোমেইন কিনতে গেলে ১০০ ডলার কিংবা এর কম মূল্য থেকে শুরু করে কয়েক মিলিয়ন ডলার পর্যন্ত দাম দিতে হবে আপনাকে। সেগুলা কে আমি/আমরা সাধারনত প্রিমিয়াম ডোমেইন বলে জানি।

পরে চিন্তা করলাম এই প্রোমো/প্রিমিয়াম কি জিনিস সেটা তো জানা দরকার। পরে দেখি কাহিনী হচ্ছে এইটা। প্রোমো/প্রিমিয়াম দুইটার কোয়ালিটি নাকি প্রাই একই। সমস্যা হচ্ছে শুধু প্রোমো ডোমেইন নেম সার্ভার/ডিএনএস ম্যানেজম্যান্ট করতে গেলে নাকি তাদের সাপার্টে যোগাযোগ করতে হবে। এবং ডোমেই রেজি: করতে চাইলে সময় ১দিন থেকে ৭ দিন পর্যন্ত লাগতে পারে। পরে চিন্তা করলাম কাহিনীর আরো গভীরে যাওয়া দরকার। কারন আমার ডোমেইন এর ম্যানেজমেন্ট আমি করব সেটার জন্য প্রোভাইডারের কাছে যেতে হবে কেন (সাময়িক সমস্যা হলে সেটা অন্য কথা) এবং এই ডিজিটাল যুগে কেন ডোমেইন রেজি: করতে ৭ দিন লাগবে? কারন আমি ডোমেইন রেজি: বাটনে ক্লিক করা মাত্র ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন হয়ে যায়।

ঘাটাঘাটি করে যা দেখলাম, সেটা হচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল কিছু কোম্পানী অফারে কাস্টমার এর কাছে ডোমেইন ২/৩/৪ ডলারে বিক্রি করে এবং বাংলাদেশী কিছু কোম্পানী কাস্টমার এর কাছ থেকে টাকা/অর্ডার নিয়ে সেই ডোমেইন কিনে বিক্রি করে ২০০/৩০০/৪০০ টাকায়। এবং এইসব ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানী শুধুমাত্র কাস্টমার এর কাছে ডোমেইন এই  ২/৩/৪ ডলারে বিক্রি করে, কিন্তু কোন রিসেলার কাছে এই প্রাইজে বিক্রি করে না। যার জন্য এই সব ডোমেইন এর বিলিং প্যানেল এ ম্যানেজম্যান্ট অটোমেশন করা সম্ভব হয় না। ফলস্বরুপ এইসব প্রোমো নামের ডোমেইন এর কন্ট্রোল প্যানেল নিজের কাছে রেখে দেন এই সব বাংলাদেশী প্রোমো প্রোভাইডাররা।

এই সব মেইন প্রোভাইডার যারা ইন্টারন্যাশনাল মার্কেটে এই দামে ডোমেইন বিক্রি করে, তারা যদি কোনভাবে জানতে পারে এভাবে তাদের কাছ থেকে ডোমেইন কিনে সেগুলো প্রোমো ডোমেইন/প্রোমোশনাল ডোমেইন ইত্যাদি নামে বিক্রি করা হচ্ছে, তখন সাথে সাথে এই সব  ডোমেইন সহ একাউন্টগুলো সাসপেন্ড করা হবে। ফলস্বরুপ কি হবে, আপনার সাধের ডোমেইন হটাৎ করে সারা জীবনের জন্য গায়েব হয়ে যেতে পারে!!!

কিন্তু এর পরের কাহিনীটা ভয়াবহ।

এই সব ভুক্তভোগীরা আমাকে ফোন করে প্রথমেই বলে ভাই এই বছরের কথা জানার দরকার নাই পরের বছর রিনিউ চার্জ কত? আমি বলি আমাদের সাইটে উল্লেখ আছে রিনিউ প্রাইজ একই। পরে বলে ভাই এর থেকে বেশী দাম নিবেন নাতো আবার? কারন ভাই এর আগে ধরা খাইছি, কিংবা বলে আমার পরিচিত লোক এইভাবে ধরা খাইছে। প্রোভাইডার বলছে অতিরিক্ত টাকা দিতে হবে, না দিলে রিনিউ হবে না। এই প্রশ্নটার পর কাস্টমার কে জবাবটা ভালোভাবে দিতে হয়। সাধারন দেখা যায় ইন্টারন্যাশনাল প্রোভাইডাররা ডোমেইন এর প্রাইজ ১/২/৩ বছর পর কিছুটা বাড়িয়ে দেয় তবে সেটা সময় ১ ডলার এর নিচে থাকে। যার প্রভাব পরে আমাদের এই ছোটখাটো ব্যাবসার উপরে। কেননা এই বছর জনপ্রিয় ডোমেইন রিসেলার প্রোভাইডার Resell.Biz তাদের প্রত্যেকটা ডোমেইন এর মূল্য ১৫ সেন্ট দাম বাড়িয়েছে অর্থাৎ বাংলাদেশী টাকায় ১২ টাকার মত প্রতি ডোমেইন এ বেড়ে গেছে। কিন্তু তার পরেও আমাদের কোম্পানী সেই আগের মূল্যে ৮০০ টাকায় ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন/রিনিউ/ট্রান্সফার করছি। কিন্তু এইভাবে যদি ধাপে ধাপে ডোমেইন এর দাম বাড়তে থাকে, তাহলে আমাদের টিকে থাকার স্বার্থে ডোমেইন এর দাম ৫০/১০০ টাকা বাড়াতে হবে। তখন তাদের বলি যদি কখনও ডোমেইন এর দাম বাড়ে তাহলে সেটা ৫০/১০০ টাকা সর্বোচ্চ বাড়তে পারে এবং এই দাম বৃদ্দির ঘোষনা ১ মাস আগে ঘোষনা করা হবে এবং কত তারিখ থেকে প্রযোজ্য হবে তা আমাদের সকল কাস্টমারদের কাছে কয়েক ধাপে ইমেইল করা হবে। এবং সাইটে সেই নতুন প্রাইজ উল্লেখ থাকবে এবং এই মূল্য শূধু আপনার জন্য না সবার জন্য প্রযোজ্য হবে এবং সেটা যদি আপনার/অন্য কারো পছন্দ না হয় তাহলে যে কোন সময় আপনি ডোমেইন ট্রান্সফার করে অন্য কোথাও চলে যেতে পারেন নিশ্চিন্তে। বাকিটুকু আপনার ইচ্ছা।

দ্বিতীয়ত প্রশ্ন দাম নিয়ে। যখন বলি .কম ডোমেইন এর দাম ৮০০ টাকা। তখন অনেক কাস্টমার বলে একি বলছেন ভাই .কম ডোমেইন এর দাম তো  ২০০/৩০০/৪০০ টাকা। অমুক কোম্পানীতো বিক্রি করছে। এর পরে জবাব আর কি দিব? আশা করি আপনারা এর জবাব পেয়ে গেছেন।

কারন একটা .কম ডোমেইন এর দাম ৭০০ টাকার মত যদি আপনি মেইন রিসেলার হয়ে থাকেন এবং এই প্রাইজটা পাবার জন্য আপনাকে যথেস্ট ইনভেস্ট করতে হবে ডোমেইন এর ফান্ড এর জন্য। বাংলাদেশী অথবা অন্য কোন প্রোভাইডার এর কাছ থেকে ডোমেইন রিসেলার নিলে সেক্ষেত্রে আরও বেশী দাম লাগবে। তাছাড়া বাংলাদেশী যেসব প্রোভাইডাররা যারা যথেস্ট সুনামের সাথে ব্যাবসা করে আসছে তাদের প্রাইজ গুলো একটু কষ্ট করে দেখে নিবেন। আশা করি তখন ব্যাপারটা পরিস্কার হয়ে যাবে।

তো বকবক অনেক্ষন করলাম। আপনি যেখান থেকেই ডোমেইন নিন না কেন, একটু বুঝে শুনে নিবেন এবং অবশ্যই জেনে নিবেন আপনি ফুল কন্ট্রোল প্যানেল পাচ্ছেন কি না। তা না হলে পরে আপনার আফসোসের সীমা থাকবে না।

যাই হোক ভালো এবং সুস্থ থাকবেন সবাই। সামনে আরো আসছে আমার ডোমেইন হোস্টিং বিষয়ক লেখা। সে পর্যন্ত আপাতত অপেক্ষা…

 

মূল লেখক : Sumir Sutradhar

 

বি:দ্র: যারা এই লেখাটি পড়ছেন, তাদের কাছে যদি ভালো লেগে থাকে আশা করি সবাই এই লেখাটি শেয়ার করবেন। অন্তত কিছু মানুষ বেঁচে যাবে এই ধরনের প্রতারকদের হাত থেকে।

8 thoughts on “ডোমেইন কিনবেন? একটু বুঝে শুনে কিনুন, যদি প্রতারিত হতে না চান! মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। কাজে লাগবে অবশ্যই

  1. Pingback: ব্লগিং নিয়ে ধারাবাহিক টিউনের প্রথম পর্ব- শুরুটা করবেন কিভাবে?

  2. Pingback: ব্লগিংWith অন্যরকম মানুষ। পর্ব ১ঃ শুরুটা করবেন কিভাবে? | অন্যরকম মানুষ

  3. Sports News

    অনেক বিপদ থেকে বাচাইলেন । এ ধরনের সতর্কতা মুলক পোষ্ট করুন । যাতে কেউ প্রতারিত না হয় ॥

    Reply
  4. Pingback: ওয়েব হোস্ট

  5. Pingback: ডোমেইন কিনে প্রতারিত হতে না চাইলে এই ব্লগ টি পড়ুন – blog.recent-bd.com

  6. Pingback: ডোমেইন কেনার সময় প্রতারণা থেকে রক্ষা পাওয়ার উপায় – blog.recent-bd.com

  7. Md Abdullah Milon

    খুবই ভাল লাগল আপনার ব্লগটি।আমি অত্যান্ত আনন্দিত এমন একটি সতর্কতা মূলক ব্লগ পরে।

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *