সার্ভার ডাউন!!! কিভাবে বুঝবেন আপনার প্রোভাইডারের ওয়েব সার্ভার ডাউন? এছাড়া দেখে নিন কিছু ডোমেইন/হোস্টিং টিপস।

আমি সুমির, ছোট একটা ওয়েব হোস্টিং ব্যাবসার সাথে জড়িত। ওয়েব হোস্টিং নিয়ে গ্রাহকরা অনেক সময় না বুঝে ভুল অভিযোগ করে থাকেন, যেগুলো অনেক সময় দেখা যায় ঠিক না। এবং এই সব ব্যাপারে গ্রাহকদের মনে অনেক ভ্রান্ত ধারনা আছে। বর্ণনা করছি কিছু এই রকম কিছু অভিযোগ।

 কেস স্টাডি ১ (সার্ভার ডাউন) : কোন কারনে কাস্টমার যদি দেখে তার ওয়েব সাইট টি দেখা যাচ্ছে না সাথে সাথে প্রোভাইডারের সাথে যোগাযোগ করে বলে থাকেন সার্ভার ডাউন। এবং অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা যায় যে এই সব অভিযোগ গুলো মিথ্যা। কেননা অনেক সময় কাস্টমার বার বার ভুল ইনফো দিয়ে সিপ্যানেল/ এফটিপি তে লগইন এর চেস্টা করার কারনে তার সার্ভার ফায়ারওয়াল এর আইপি ব্লক করে দিয়েছে অথবা দেখা যায় ইন্টারনেট প্রোভাইডারের আই পি শেয়ার্ড হবার কারনে অন্য কোন কাস্টমার ভুল ইনফো দিয়ে লগইন এর চেস্টা করার কারনে আই পি টি সার্ভার ফায়ারওয়াল ব্লক করে দিয়েছে। ফল স্বরুপ সাইট টি দেখা যাচ্ছে না। অথবা আপনার আইএসপি’র ডিএনএস সমস্যার জন্য আপনার সাইটটি নাও দেখা যেতে পারে। এর জন্য আপনার আইএসপি’এর এই সব সমস্যার জন্য অবশ্যই আপনার হোস্টিং প্রোভাইডার দায়ী না। যাই হোক, এখন আপনি কিভাবে বুঝবেন আপনার হোস্টিং প্রোভাইডারের সার্ভার আসলে ডাউন কি না? নিচের পদ্ধতি গুলো অনুসরন করুন।

১। প্রথমে আপনার নেট কানেকশন টা ডিসকানেক্ট করে আবার পুনরায় সাইট ভিজিটের চেস্টা করেন। কারন আপনার আইএসপির আইপি যদি ডায়ানামিক হয়ে থাকে, তাহলে পুনরায় কানেকশন হওয়ার কারনে আপনার আইপিটি চেঞ্জ হয়ে যাবে এবং ফলসরুপ আপনি সাইট দেখতে পারবেন।

২। অন্য কোন কোম্পানীর নেট কানেকশন দিয়ে চেষ্টা করুন অথবা ইন্টারনেট কানেকশন আছে এইরকম মোবাইল দিয়ে সাইট ভিসিট করার চেস্টা করুন।

৩। নিচের ওয়েব সাইট আপটাইম ঠিকানা দিয়ে চেক করুন যে আসলে ডাউন কি না?

http://www.downforeveryoneorjustme.com

http://www.isitdownrightnow.com

৪। নিচের প্রক্সি সাইট দিয়ে আপনার সাইটটা অনলাইনে থাকলে দেখতে পারবেন।

http://edilly.com

এখন এতকিছু করেও যদি আপনার সাইটের খোজ না পান, তাহলে বুঝতে হবে অবশ্যই আপনার সাইটের কিছু একটা হয়েছে। মেইল চেক করুন, দেখুন কোন মেইনটেইন্স নোটিশ পাঠিয়েছে কি না প্রোভাইডার অথবা তাদের ফেসবুক/টুইটার চেক করে দেখেন সেখানে কোন মেইনটেইন্স নোটিশ আছে কি না? এরপর সাপোর্ট টিকেট পোস্ট/ইমেইল করুন আর যদি হেলপ লাইন থাকে তাহলে ডোমেইন এর নাম উল্লেখ করে সমস্যা বলুন, কেননা একটা কোম্পানীর একাধিক সার্ভার থাকতে পারে। তাই ডোমেইন নাম বললে আপনার সাইটটি কোন সার্ভার এ হোস্ট করা আছে তা সহজেই বের করা যাবে এবং তাদের আপডেট জানুন। ১ ঘন্টার মাঝে কোন আপডেট না পেলে টিকেট/মেইল রিপ্লাই করুন অথবা  হেলপ লাইন থাকলে কথা বলুন।

(আর অযথা ৫/১০ মিনিট পর পর ফোন/টিকেট/মেইল দিয়ে প্রোভাইডারের মেইনটেইন্স এর কাজে বিঘ্ন ঘটাবেন না। কারণ একটু পর পর টিকেট অথবা ফোন দিলে সার্ভার মেইনটেইন্স স্থগিত রেখে কাস্টমারদের ফোন অথবা টিকেটের উত্তর দিতে হবে। যার জন্য মেরামত কাজ বিঘ্নিত হবে এবং ডাউনটাইম স্বভাব সুলভ বেড়েই চলবে।)

কেস স্টাডি ২ (ডোমেইন এর কন্ট্রোল প্যানেল) : অনেক সময় দেখা যায় কাস্টমার অভিযোগ করে থাকেন যে তাকে ডোমেইন এর ফুল কন্ট্রোল প্যানেল দেয়া হয় নাই। এই অভিযোগ করার কারন হচ্ছে যে ডোমেইন এর Who Is ইনফরমেশন চেক করলে দেখা যায় তার নাম দেখাচ্ছে না, উল্টা পাল্টা নাম ফোন নাম্বার ইত্যাদি দেখাচ্ছে। স্বভাব সুলভ ভাবেই কাস্টমার মনে করে আসলে বুঝি তার ডোমেইন এর কন্ট্রোল প্যানেল দেওয়া হয় নাই। সাথে সাথে প্রোভাইডার কে ফোন অথবা হয়ত তিনি অন্য কাউকে অভিযোগ করে থাকের প্রোভাইডার দের বিরুদ্ধে। তো যাই হোক Who Is ইনফরমেশন উল্টা পাল্টা হওয়ার অন্যতম কারন হচ্ছে অনেক সময় কাস্টমার ডোমেইন এর অর্ডার করা সময় Privacy Protection/ID Protection/ Whois Guard ইত্যাদি ফ্রী দেওয়ার কারনে কাস্টমার টিক মার্ক দিয়ে দেন এবং ফল সরুপ Privacy Protection/ID Protection/ Whois Guard সার্ভিস এক্টিভ হয়ে যায় এবং এর জন্য ডোমেইন এর ইনফরমেশন এর যায়গায় উল্টা পাল্টা নাম তথ্য দেখায়। এর জন্য আপনি প্রথমে ডোমেইন এর কন্ট্রোল প্যানেল অথবা কোম্পানীর দেওয়া নির্ধারিত প্যানেল এ আপনার ক্রয়কৃত ডোমেইন এর ম্যানেজমেন্ট অপশনে গিয়ে দেখেন Privacy Protection/ID Protection/ Whois Guard এগুলো এনাবল করা আছে কি না, থাকলে ডিসেবল করে দিন। যদি আপনাকে ডোমেইন এর ফুল কন্ট্রোল দেয়া হয়ে থাকে এবং এই অপশন টি ডিসেবল করে দিলে অবশ্যই আপনার ইনফরমেশন আপনার ডোমেইন এর Who Is এ দেখাবে।

কেস স্টাডি ৩ (সার্ভার স্লো) : অনেক সময় কাস্টমার অভিযোগ করে থাকেন প্রোভাইডারের সার্ভার নাকি স্লো বা ধীরগতির। ব্যাপারটা প্রোভাইডারের সার্ভার অথবা কাস্টমার এর সাইট দুইটার কারনে ঘটতে পারে। প্রোভাইডারের সার্ভার এর যদি এই সমস্যা হয় তবে সেটা প্রোভাইডারকেই ঠিক করতে হবে। আর যদি ব্যাপারটা কাস্টমারের নিজের অজ্ঞতার কারনে হয়??? তাহলে বলেন তো দেখি দোষটা কার???

যেমন, কিছুদিন এক কাস্টমার আমাকে ফোন করে বলল আমাদের সার্ভার নাকি প্রচন্ড স্লো। তার সাইটটা নাকি লোড হতে অনেক সময় নিচ্ছে। হোমপেজ পুরোপরি লোড হতে নাকি ৪/৫ মিনিট সময় লাগে। তাকে বললাম আপনি কি কানেকশন ব্যাবহার করেন? উত্তর পেলাম গ্রামীনফোন। স্পীড কেমন পাওয়া যায়? উত্তর এল ঠিক নাই তবে ১৮ থেকে ২৫ কেবি। পরে তার সাইটটার ঠিকানা নিয়ে বললাম দেখতেছি এবং কিছুক্ষন পর জানাচ্ছি সমস্যা কি?

পরে তার সাইটে গিয়ে আমার তো দিশেহারা অবস্থা। বিভিন্ন সাইজের ইমেজ দিয়ে হোমপেজের অবস্থা খারাপ। তার হোমপেজের সাইজ দেখলাম ৯.৭২ মেগাবাইট! বিভিন্ন রকমের বড় বড় ইমেজ, প্লাগইন ইত্যাদি দিয়ে হোমপেজ টা অনেক হিজিবিজি করে ফেলেছে। বুঝেন তাহলে,

পরে তাকে বুঝিয়ে বললাম দয়া করে সাইটটা অপটিমাইজ করুন, ইমেজগুলো সঠিক ফরমেটে দেন, আর অযথা অতিরিক্ত প্লাগইন ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

আপনারা নিচের ঠিকানা থেকে আপনাদের সাইটের পেজ লোডিং টাইম, পেজ সাইজ এবং আরো অন্যান্য বিষয়ে জানতে পারবেন।

উপরোক্ত ঘটনাগুলো আমার নিজের ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতার আলোকে লেখা। যদি ভালো লাগে, আশা করি মতামত জানাতে ভুলবেন না। আজ এই পর্যন্ত।

মূল লেখক : Sumir Sutradhar 

One thought on “সার্ভার ডাউন!!! কিভাবে বুঝবেন আপনার প্রোভাইডারের ওয়েব সার্ভার ডাউন? এছাড়া দেখে নিন কিছু ডোমেইন/হোস্টিং টিপস।

  1. Pingback: ওয়েব হোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *