স্কুলজীবনে যেমন ছিলেন টেক গুরুরা

প্রযুক্তি খাতের শীর্ষ ব্যক্তিদের নিয়ে প্রযুক্তিপ্রেমীদের আগ্রহের শেষ নেই। তাদের ছোটবেলা থেকে শুরু করে জীবনযাপন, পছন্দ-অপছন্দ সম্পর্কে কৌতুহল অনেকেরই। ছোটবেলায় স্কুলের দিনগুলোয় তারা দেখতেই বা কেমন ছিলেন, সেটাও অনেকের অজানা। ব্যবসা ও প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট বিজনেস ইনসাইডার স্কুলের ইয়ারবুকে থাকা টেক গুরুদের বেশকিছু ছবি সম্প্রতি প্রকাশ করেছে।

স্টিভ জবস

অ্যাপলের সহ প্রতিষ্ঠাতা, চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী (প্রয়াত) স্টিভ জবস তার মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক স্কুলজীবন ক্যালিফোর্নিয়ার কুপারটিনোয় পার করেছেন। সেখানে স্টিভ ওজনিয়াকের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। আর কম্পিউটারের প্রতি দুজনের আগ্রহ থেকেই ১৯৭৬ সালে তারা প্রতিষ্ঠা করেন অ্যাপল।

স্টিভ ওজনিয়াক

অ্যাপলের সহ প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ ওজনিয়াকের জন্ম ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান হোসে। স্টিভ ওজনিয়াক হিউলেট প্যাকার্ডে (এইচপি)-তে চাকরীকালীন সময়ে স্টিভ জবসের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। স্টিভ জবস সেসময় স্কুলে পড়ালেখার পাশাপাশি এইচপিতে খন্ডকালীন চাকুরী করতেন। সেখান থেকেই তাদের দুজনের পথ চলা, যা থেকেই পরবর্তীতে প্রযুক্তি বিশ্বে আসে অ্যাপল এবং এটি বর্তমানে বিশ্বের শীর্ষ প্রযুক্তি পণ্যের প্রতিষ্ঠান।

বিল গেটস

মাইক্রোসফটের সহ প্রতিষ্ঠাতা এবং বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি বিল গেটস ওয়াশিংটনের সিয়াটলে বড় হোন। কম্পিউটার তিনি প্রথম ব্যবহার করেন স্কুল জীবনে, লেকসাইড স্কুলে। এরপর বিল গেটস হার্ভার্ডে পড়ালেখা করেন এবং ১৯৭৫ সালে পল অ্যালেনের সঙ্গে মাইক্রোসফট প্রতিষ্ঠা করেন।

এরিক স্মিট

গুগলের নির্বাহী চেয়ারম্যান এরিক স্মিথ বড় হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায়। সেখানে হাইস্কুল জীবনে তিনি  ইয়র্কটাউন হাইস্কুলে পড়ালেখা করেন। বর্তমানে তার নেতৃত্বে চলছে গুগলের মতো প্রতিষ্ঠান।

টিম কুক

অ্যাপলের বর্তমান প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টিম কুক বড় হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আলাবামায় এবং সেখানে তিনি রবার্টসডেইল হাইস্কুলে অধ্যয়ন করেন। পরবর্তীতে অবার্ন ও ডিউক ইউনিভার্সিটিতে অধ্যয়নের পর ১৩ বছর কাজ করেন আইবিএমে। অ্যাপলে যোগ দেন ১৯৯৮ সালে। ২০১১ সালে স্টিভ জবসের মৃত্যুর পর থেকে অ্যাপলের প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব পালন করছেন টিম কুক।

স্টিভ বলমার

মাইক্রোসফটের সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা স্টিভ বলমারের জন্ম যুক্তরাষ্ট্রের ডেট্রয়েটে। বড় হয়েছেন মিশিগানে। গণিতে দক্ষ এ প্রযুক্তিবিদ তার স্কুলজীবনের সর্বত্রই ভালো শিক্ষার্থী হিসেবে পরিচিত ছিলেন। ১৯৮০ সালে তিনি মাইক্রোসফটে ব্যবসা ব্যবস্থাপক হিসেবে যোগদান করেন। ২০০০ সালের জানুয়ারি মাসে তিনি মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহীর দায়িত্ব নেন। ২০১৩ সালের আগস্ট মাসে তিনি ঘোষণা করেন যে আগামী ১২ মাসের মধ্যে মাইক্রোসফটের প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন। এই ঘোষণা অনুযায়ী তিনি ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারি মাসের ৪ তারিখে তার পদ থেকে অবসর গ্রহণ করেন এবং সত্য নাদেলা তার পদে স্থলাভিষিক্ত হন।

সের্গেই ব্রিন

গুগলের সহ প্রতিষ্ঠাতা সের্গেই ব্রিন মক্সোতে (সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন, বর্তমানে রাশিয়া) জন্মগ্রহণ করেন এবং সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে ৬ বছর বয়সেই পরিবারের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রে চলে আসেন। তিনি ম্যারিল্যান্ডের পেইন্ট মন্টেসুরি স্কুলে পড়ালেখা করেন এবং গণিতে খুব পারদর্শী ছিলেন। পরবর্তীতে ম্যারিল্যান্ড ইউনিভার্সিটি এবং স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে অধ্যায়ন করেন। স্ট্যানফোর্ডে পড়ালেখাকালীন সময়ে সের্গেই ব্রিনের পরিচয় হয় ল্যারি পেজের সঙ্গে। এবং তারা দুজনে প্রতিষ্ঠা করেন সার্চ জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান গুগল।

জেফ বেজোস

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজনের প্রতিষ্ঠাতা, চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী জেফ বেজোস ম্যাক্সিকোতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি পড়ালেখা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার মিয়ামি পালমেটো সিনিয়র হাইস্কুলে। পরবর্তীতে তিনি ইউনিভার্সিটি অব ফ্লোরিডা ও প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটিতে অধ্যায়ন করেন। ১৯৯৪ সালে তিনি প্রতিষ্ঠা করেন ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান অ্যামাজন।

ল্যারি পেজ

গুগলের সহ প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ বড় হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে এবং সেখানে তিনি অকোমোস মন্টেসরি স্কুল এবং ইস্ট ল্যান্সিং হাইস্কুলে পড়ালেখা করেন। পরবর্তীতে মিশিগান ইউনিভার্সিটি এবং স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে অধ্যায়ন করেন। স্ট্যানফোর্ডে পড়ালেখাকালীন সময়ে ল্যারি পেজের পরিচয় হয় সের্গেই ব্রিনের সঙ্গে। এবং তারা দুজনে প্রতিষ্ঠা করেন সার্চ জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান গুগল।

মাইকেল ডেল

ডেল এর প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী মাইকেল ডেল বড় হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের হিউস্টন, টেক্সাসে। সেখানে তিনি হেরোদ ইলিমেন্টারি স্কুল এবং মেমোরিয়াল হাইস্কুলে অধ্যায়ন করেন। পরবর্তীতে টেক্সাস ইউনিভার্সিটিতে পড়ালেখাকালীন সময়েই তিনি ১৯৮৪ সালে প্রতিষ্ঠা করেন কম্পিউটার প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ডেল।

ডেভিড ফিলো

ইয়াহুর সহ প্রতিষ্ঠাতা ডেভিড ফিলো জন্মগ্রহণ করেন যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনে, তবে তিনি বড় হয়েছেন লুইজিয়ানায়। সেখানে তিনি স্যাম হাউস্টোন হাইস্কুলে অধ্যায়ন করেন। পরবর্তীতে তিনি টুলেন ইউনিভার্সিটি এবং স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি পড়ালেখা করেন। ১৯৯৪ সালে জেরি ইয়াংয়ের সঙ্গে তিনি গড়ে তোলেন একটি ওয়েবসাইট যার নাম দেওয়া হয় ‘জেরি অ্যান্ড ডেভিডস গাইড টু দ্য ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েব’। এটি ছিল অন্যান্য ওয়েবসাইটের একটি ডিরেক্টরি। এই সাইটের নাম পরিবর্তন করে পরবর্তী সময়ে রাখা হয় ‘ইয়াহু’।

জেরি ইয়াং

ইয়াহুর সহ প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রাক্তন প্রধান নির্বাহী জেরি ইয়াং জন্মগ্রহণ করেন তাইওয়ানে। তিনি দুই বছর বয়সে বাবাকে হারান। দশ বছর বয়সে মা ও ছোট ভাইসহ যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় চলে যান। সেখানে তিনি সিয়েরামাউন্ট মিডল স্কুল এবং পিডমাউন্ট হাইস্কুলে অধ্যায়ন করেন। পরবর্তীতে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে পড়ালেখাকালীন সময়ে জেরি ইয়াংয়ের পরিচয় হয় ডেভিড ফিলোর সঙ্গে। ১৯৯৪ সালে তারা দুজনে মিলে প্রতিষ্ঠা করেন ইয়াহু।

সুত্র : রাইজিংবিডি 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *